Pages

Monday, September 3, 2018

লজ্জা গৌরী

লজ্জা গৌরী হচ্ছে একজন হিন্দু দেবী যাকে উর্বরতা ও প্রাচুর্যের দেবী রূপে বিশ্বস করা হয় এবং তাঁকে লজ্জার অভিব্যক্তি হিসেবে বর্ণিত করা হয়েছে।

ইতিহাস
লজ্জা গৌরীর প্রারম্ভিক বর্ণনা সিন্ধু উপত্যকার শক্তিবাদীগণের দ্বারা খোদিত শিলালিপিতে পাওয়া যায়, যদিও পরবর্তী বর্ণনাসমূহ ১ম-৩য় শতাব্দীকালের, এবং ভারতীয় উপমহাদেশের দাক্ষিণাত্য অঞ্চলে এই দেবীর উপাসনার প্রচলন ঘটে।

বিভিন্ন রূপ
হিন্দুধর্মাবম্বীদের মহান মা দেবী লজ্জা গৌরী, অদিতি, অদ্য শক্তি; ঋষি জমদগ্নির পত্নী রেণুকা নামেও পরিচিত, এছাড়া মাতঙ্গী, ইয়ালাম্মা (সকলের মাতা), কোটারী, কোটাভী (একজন নগ্ন কুলদেবী), কোট্টামহিকা, কোটমাই এবং অন্যান্য নামেও উর্বরতার (প্রজনন) দেবীরূপে উপাসনা করা হয়। তিনি বর্তমান হিন্দুধর্মের সবচেয়ে প্রাচীন দেবী রূপ, মহারাষ্ট্র, গুজরাটের গ্রামগুলোতেও এই দেবীর উপাসনার প্রচলন ঘটে, যার উল্লেখ অমরাবতী, মধ্য ভারতের গ্রামীণ অঞ্চল, অন্ধ্রপ্রদেশ, কর্ণাটকে প্রাপ্ত (বর্তমানে রাজ্য সসংগ্রহশালা, চেন্নাইতে সংরক্ষিত) ১৫০ - ৩০০ খ্রিস্টপূর্বের ভাস্কর্য থেকে জানা যায়। এখানকার বাদামি নামক শহরেটি বাদামি গুহা মন্দির-এর জন্য বিখ্যাত; এখানকার স্থানীয় প্রত্নতত্ত্ব সংগ্রহশালার শিলালিপিতেও উল্লেখিত রয়েছে; যা আসলে বিজাপুরের নাগনাথ মন্দিরে পাওয়া গেছিল।

0 comments:

Post a Comment

 
Design by দেবীমা | Bloggerized by Lasantha - Premium Blogger Themes | Facebook Themes