Pages

Friday, October 19, 2018

শুভ বিজয়া দশমী

আজ বিজয়া দশমী। অশুভশক্তির বিরুদ্ধে শুভশক্তির বিজয়ের দিন আজ। বাঙালি হিন্দুধর্মাবলম্বীদের প্রধান উত্সব দুর্গাপূজা। বর্ষার অঝোরধারা আর প্যাচপেচে পরিবেশের পর দুর্গাপূজা আসে শরতের শুভ্র কাশফুলের দোলা আর পেঁজাতুলা মেঘের ভেলায় করে। অবশ্য শরতের এই উত্সবটির নেপথ্যে রহিয়াছে দশরথপুত্র শ্রীরামচন্দ্রের অবদান। কৃত্তিবাসের রামায়ণ হইতে জানা যায়, সীতা উদ্ধারের জন্য শ্রীরামচন্দ্র কালিদহ সাগর হইতে ১০১টি নীলপদ্ম সংগ্রহ করিয়া সাগরকূলে বসিয়া শরত্কালে সর্বপ্রথম শক্তি তথা দুর্গোত্সবের (অকাল বোধন) আয়োজন করেন। বসন্তকালে দেবীদুর্গার বাসন্তী পূজার নিয়ম থাকিলেও শরতে রামচন্দ্রের অকালবোধনের আয়োজনই পরবর্তীকালে জনপ্রিয়তা লাভ করে। অর্থাত্ এই শারদীয় উত্সবের সঙ্গে রহিয়াছে রামচন্দ্রের প্রতি আজ্ঞাবহের ইঙ্গিত। হিন্দু শাস্ত্রানুসারে দুর্গাপূজার বাহন সিংহ। কিন্তু পৌরাণিক মতে, দেবী দুর্গা প্রতি বত্সর কৈলাস হইতে বাপের বাড়ি মর্ত্যলোকে আগমনের সময়ে চারটি আলাদা বাহন (অশ্ব, হস্তী, নৌকা এবং দোলা) ব্যবহার করিয়া থাকেন। স্বামীর বাড়ি ফিরিয়াও যান আলাদা আলাদা বাহনে।
শুভ বিজয়া দশমী

প্রাকৃতিক বিপর্যয়, যুদ্ধ, সামাজিক অশান্তি অবশ্য সামপ্রতিককালে এই জগতের নিত্যচিত্রের রূপ ধারণ করিয়াছে। সনাতন ধর্মের প্রধান ধর্মগ্রন্থ শ্রীমদ্ভগবতগীতায় শ্রীকৃষ্ণ বলিয়াছেন—‘যদা যদা হি ধর্মস্য গ্লানির্ভবতি ভারত। অভ্যুত্থানমধর্মস্য তদাত্মানং সৃজাম্যহম। পরিত্রাণায় সাধুনাং বিনাশায় চ দুষ্কৃতাম। ধর্মসংস্থাপনার্থায় সম্ভবামি যুগে যুগে।’ অর্থাত্ যখনই ধর্মের অধঃপতন হয় এবং অধর্মের উত্থান ঘটে, তখনই সত্ মানুষের পরিত্রাণ ও দুষ্টলোকের বিনাশ সাধন করিতে এবং ধর্মকে পুনরায় সংস্থাপন করিতে ঈশ্বর বিভিন্নরূপে যুগে যুগে ধরাধামে অবতীর্ণ হন। দেবী দুর্গাও মর্ত্যে আসিয়া অশুভ শক্তির বিনাশের মাধ্যমে শুভশক্তিকে প্রতিস্থাপন করেন। জীবের দুর্গতি নাশ করেন বলিয়াও তাহাকে দুর্গা বলা হয়। ব্রহ্মার বরে পুরুষের অবধ্য মহিষাসুর নামে এক দানব স্বর্গরাজ্য দখল করিলে রাজ্যহারা দেবতারা বিষ্ণুর শরণাপন্ন হন। বিষ্ণুর নির্দেশে সকল দেবতার তেজঃপুঞ্জ হইতে যে দেবীর জন্ম হয় তিনিই দুর্গা। দেবতাদের শক্তিতে শক্তিময়ী এবং বিভিন্ন অস্ত্রে সজ্জিতা হইয়া এই দেবী যুদ্ধে মহিষাসুরকে বধ করেন। দেবী দুর্গা দশভুজা, ইন্দ্রিয় সংযমের প্রতীক তাঁহার দশ হাত দশ দিক রক্ষায় শক্তিসম্পন্না। দুর্গা ত্রিনয়না—অগ্নি, সূর্য ও চন্দ্রের প্রতীক ব্রহ্ম, বিষ্ণু ও মহেশ্বরের শক্তিসম্পন্না।

দুর্গাপূজার মাধ্যমে জগতের শুভশক্তিরই আরাধনা করিয়া থাকেন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা। তাহাদের নিকট পূজা মানে হইল—নিবেদন অর্থাত্ প্রশংসা বা শ্রদ্ধা জানানো। দিকে দিকে সুর-অসুরের যে যুদ্ধ চলিতেছে, তাহারই প্রতীকী বিজয়ের প্রকাশ দেখিতে পাওয়া যায় দুর্গোত্সবে। সকল সনাতন ধর্মাবলম্বীর প্রতি জানাই বিজয়া দশমীর শুভেচ্ছা। শুভ বিজয়া।

0 comments:

Post a Comment

 
Design by দেবীমা | Bloggerized by Lasantha - Premium Blogger Themes | Facebook Themes